ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর

আজ আমরা ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে জানবো। আগামী ১২ জুন ২০২৩ অনুষ্ঠিত হবে ৬ষ্ঠ শ্রেণির অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান পরীক্ষা। এখানে শিখন কালীন মূল্যায়ণ এবং সামষ্টিক মূল্যায়নের অ্যাসাইনমেন্টগুলো জানতে পারবে এবং তা সমাধান কৌশল জানা যাবে।

গত পর্বে আমরা ষষ্ঠ শ্রেণি বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩ সম্পর্কে জেনেছি। তোমাদের প্রত্যাশার ভিত্তিতে এবার ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর চেষ্টা করবো।

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান মূল্যায়ন

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর

২০২৩ সালের অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষা বা ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়নে ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়ের দুইভাবে মূল্যায়ন করা হবে। শিখনকালীন ও সামষ্টিক মূল্যায়ন।

শিখনকালীন যেসকল বিষয়গুলো যাচাই করা হবে-

ক্রমশিখন অভিজ্ঞতাপ্রাসঙ্গিক যোগ্যতা
০১আত্মপরিচয়ভৌগোলিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় নিয়ে নিজের আত্মপরিচয় ধারণ করা ও সেই অনুযায়ী দায়িত্বশীল আচরণ করতে পারা
০২সক্রিয় নাগরিক ক্লাবসমাজে ব্যক্তির অবস্থান ও তার ভূমিকা বিদ্যমান সামাজিক এবং রাজনৈতিক কাঠামো দ্বারা কীভাবে নির্ধারিত হয় তা অনুসন্ধান করতে পারা
০৩বিজ্ঞানের চোখ দিয়ে চারপাশ দেখিবৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গি ব্যবহার করে সময় ও ভৌগোলিক অবস্থানের সাপেক্ষে সামাজিক কাঠামো ও এর উপাদানসমূহের পরিবর্তন অন্বেষণ করতে পারা
০৪আমাদের এলাকায় মুক্তিযুদ্ধলিখিত উৎসের সঙ্গে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উপাদান থেকে ঐতিহাসিক তথ্য অনুসন্ধান করে মুক্তিযুদ্ধে সর্বস্তরের মানুষের অবদান উপলব্ধি করতে পারা
ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক শিখনকালীন মূল্যায়ন প্রশ্ন

সামষ্টিক মূল্যায়ন (ষষ্ট শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান)

কাজের শিরোনাম: অন্যদের চিনে নিজেকে জানি

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষা বা ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়নের চূড়ান্ত দিন ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট অন্যদের চিনে নিজেকে জানি এর মাধ্যমে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো যাচাই করা হবে-

৬.২: ভৌগোলিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় নিয়ে নিজের আত্মপরিচয় ধারণ করা ও সেই অনুযায়ী দায়িত্বশীল আচরণ করতে পারা;

৬.১: বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গি ব্যবহার করে সময় ও ভৌগোলিক অবস্থানের সাপেক্ষে সামাজিক কাঠামো ও এর উপাদানসমূহের পরিবর্তন অন্বেষণ করতে পারা;

৬.৪: লিখিত উৎসের সঙ্গে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উপাদান থেকে ঐতিহাসিক তথ্য অনুসন্ধান করে মুক্তিযুদ্ধে সর্বস্তরের মানুষের অবদান উপলব্ধি করতে পারা;

৬.৬: সমাজে ব্যক্তির অবস্থান ও তার ভূমিকা বিদ্যমান সামাজিক এবং রাজনৈতিক কাঠামো দ্বারা কীভাবে নির্ধারিত হয় তা অনুসন্ধান করতে পারা;

সপ্তম শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন অ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করার কৌশল বা সারসংক্ষেপ

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়ে শিক্ষার্থীরা দলগতভাবে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেছেন বা মুক্তিযুদ্ধে সহযোগিতা করেছেন এমন একজন ব্যাক্তির আত্ম-পরিচয়ের ছক তৈরি করবে। কোনভাবেই যদি এমন ব্যাক্তি খুঁজে না পাওয়া যায় তাহলে বিকল্প হিসেবে এমন একজন ব্যাক্তির কাছে যাবে যিনি একজন মুক্তিযোদ্ধার সরাসরি পরিচিত ছিল ও তাঁর গল্পটি ভাল করে বলতে পারবেন।

প্রয়োজন হলে স্কুল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের এমন ব্যাক্তির সন্ধান করা ও তাঁর কাছে নিয়ে যাওয়ার জন্যে যা যা সহযোগিতা দরকার তা প্রদান করতে অভিভাবকদের আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ করবেন।

দল তৈরি করার সময় বা কাজটি যদি করার ক্ষেত্রে কোন শিক্ষার্থীর বিশেষ প্রয়োজন থাকে (ইনক্লুসিভ করতে হলে) শিক্ষক ও অভিভাবক এবং বাকি শিক্ষার্থীরা যেন তাকে সাহায্য করে সে দিকে মনোযোগ দিতে হবে। শিক্ষার্থীরা দলগত আলোচনার মাধ্যমে কাজভাগ করে একটি কর্মপরিকল্পনা তৈরি করবে।

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর

৬ষ্ঠ শ্রেণির জন্য অর্ধবার্ষিক সামষ্টিক মূল্যায়ন এর নির্দেশিকা

৬ষ্ঠ শ্রেণির জন্য অর্ধবার্ষিক সামষ্টিক মূল্যায়ন এর নির্দেশিকা

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর

চুড়ান্ত মূল্যায়নের দিন প্রয়োজনীয় সময় কাজের নির্দেশনা

১. সামষ্টিক মূল্যায়নের জন্য ২টি প্রস্তুতিমূলক সেশন এবং একটি চূড়ান্ত মূল্যায়ন দিবসের প্রয়োজন হবে।

২. প্রস্তুতিমূলক সেশনে প্রথম দিন শিক্ষক শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কয়েকটি দলে ভাগ করে দেবেন, প্রতিটি দলে ৪ থেকে ৫ জন শিক্ষার্থী থাকবে।

তিনি প্রতি দলকে তাদের এলাকার মহান মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি অংশগ্রহণ করেছেন অথবা যেকোনো ভাবে সহযোগীতা করেছেন এমন একজন বয়স্ক মানুষ খুঁজে বের করবে। এই ক্ষেত্রে অভিভাবকের সাহায্যের প্রয়োজন হবে। প্রয়োজন হলে স্কুল কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে অভিভাবকদের আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ জানাবেন।

৩. প্রস্তুতিমূলক সেশন নং ২ এর দিন শিক্ষার্থী অনুশীলন বইয়ের আঙ্গিকে বৈজ্ঞানিক ধাপ অনুসরন করে কর্মপরিকল্পনা তৈরি করবে ও এর অংশ হিসেবে সাক্ষাৎকারের জন্য শিক্ষার্থীরা ক্লাসেই শিক্ষকের সামনে বসে তারা সেই ব্যাক্তি সম্বন্ধে কি কি জানতে চায় দলীয় আলোচনার মাধ্যমে একটি প্রশ্নমালা তৈরি করবে।

প্রশ্নপত্রের মাধ্যমে তিনি কীভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন/সহায়তা প্রদান করেছেন এমন একজনের সাক্ষাৎকার গ্রহন করবে। যদি এমন কাউকে খুঁজে না পাওয়া যায় তাহলে একজন মুক্তিযোদ্ধার থেকে সরাসরি তাঁর অভিজ্ঞতা শুনেছেন এবং ভাল ভাবে বলতে পারবেন এমন একজনের সাক্ষাৎকার গ্রহন করতে হবে।

কর্মপরিকল্পনা ও প্রশ্নপত্র দলীয় ভাবে শিক্ষার্থীরা আলোচনা করে ও লিখে শিক্ষককে এক কপি জমা দিয়ে ও প্রত্যেকে এক কপি সাথে নিয়ে বাড়ি ফিরবে।

৪. প্রস্তুতিমূলক সেশন ২ এর পরে ১ সপ্তাহ সময়ের মধ্যে ব্যাক্তিকে খুঁজে বের করে সাক্ষাৎকার গ্রহন করতে হবে এবং সাক্ষাৎকার গ্রহনের সময় সকল শিক্ষার্থীর উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।

এক্ষেত্রে প্রযুক্তির ব্যবহার করে অনলাইনে মিটিং ও করা যেতে পারে, তবে সকল শিক্ষার্থীর মধ্যে প্রশ্নমালার প্রশ্নগুলো সমান ভাবে বন্টন করে দিতে হবে এবং কে কোন প্রশ্নটি করবে তা কর্মপরিকল্পনা পত্রে উল্লেখ করে দিতে হবে। শিক্ষার্থীরা প্রত্যেকে সাক্ষাৎকারের সময় ডায়েরিতে তথ্য সংগ্রহ করবে।

পরবর্তীতে এই তথ্যের ভিত্তিতে মূল্যায়নের দিন পরিচয়ের ছক পোস্টারে প্রেজেন্ট করবে। দলগত উপস্থাপনের সময় শিক্ষার্থীরা কর্মপরিকল্পনা, প্রশ্নপত্র ও পরিচয়ের ছক সবার সামনে তুলে ধরবে এবং দলের প্রত্যেককেই কিছু না কিছু উপস্থাপন করতে হবে। ডায়েরির তথ্যগুলোকে সাজিয়ে একটি কাগজে এককভাবে শিক্ষার্থীকে সংগৃহীত তথ্যপত্র জমা দিতে হবে।

ষষ্ঠ শ্রেণি ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর

মূল্যায়নের দিনের কার্যক্রম

i) প্রথম সেশন থেকে টিফিন পিরিওড পর্যন্ত পরিচয়ের ছকের পোস্টার, কর্মপরিকল্পনার পোস্টার ও প্রশ্নপত্রের পোস্টার তৈরি করবে। টিফিনের পরের সেশনে দলীয় উপস্থাপন করবে।

ii) ৫ম ও ৬ষ্ঠ সেশনে শিক্ষক সবগুলো পোস্টার জমা নিয়ে প্রতিটি শিক্ষার্থীকে একটি করে কাগজ দিবে ও তাদেরকে সাক্ষাৎকারের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে সেই ব্যাক্তির মুক্তিযুদ্ধের তথ্য বা সামাজিক কাজের অভিজ্ঞতার আলোকে “সেই মুক্তিযোদ্ধার প্রভাবে দেশের কীভাবে কল্যাণ হল” নামক একটি অনুচ্ছেদ লিখতে হবে ১০০-১৫০ শব্দের মধ্যে। এটি একটি একক মূল্যায়ন হবে এবং শিক্ষকের সামনে বসে হবে এবং শিক্ষক সেই অনুচ্ছেদটি জমা নিবেন।

মূল্যায়নের ক্ষেত্রে শিক্ষক নিচের রুব্রিক্সের সাহায্যে কর্মপরিকল্পনা পত্র, পরিচয়ের ছক, প্রশ্নপত্র, একক সংগৃহীত তথ্যপত্র, অনুচ্ছেদ ও উপস্থাপনকে মূল্যায়ন করবেন।

এছাড়াও সকল বিষয়ের নমুনা উত্তর সমূহ পাওয়ার জন্য আমাদের ফেসবুক গ্রুপ জয়েন করে নাও ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করো এবং ফেসবুক পেজটি লাইক এবং ফলো করে রাখুন। তোমার বন্ধুকে বিষয়টি জানানোর জন্য আমাদের ওয়েবসাইটটি তার খাতায় নোট করে দিতে পারো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: এই কনটেন্ট কপি করা যাবেনা! অন্য কোনো উপায়ে কপি করা থেকে বিরত থাকুন!!!